বাংলাদেশের গরিবরা খেতে পায় না: অমিত শাহ

ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন বিজেপির সাবেক সভাপতি অমিত শাহ বলেছেন, বাংলাদেশের গরিব মানুষেরা খেতে পাচ্ছে না। সে জন্য ভারতে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করছে।

আজ মঙ্গলবার দেশটির আনন্দবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে এমনটা দাবি করেন তিনি।

বাংলাদেশে আর্থিক উন্নয়নের পরও মানুষেরা পশ্চিমবঙ্গে অনুপ্রবেশ করছে কেন? এমন প্রশ্ন করা হলে দুটি কারণে এটি ঘটছে বলে উল্লেখ করে অমিত শাহ।

প্রথমটি হলো- পিছিয়ে পড়া দেশে উন্নয়ন শুরু হয় কেন্দ্র থেকে। তার সুফল প্রথমে পায় বড়লোকেরা, গরিবদের কাছে পৌঁছায় না। বাংলাদেশে এখন এই প্রক্রিয়াই চলছে।

চলমান উন্নয়ন সীমান্তবর্তী এলাকায় পৌঁছায়নি উল্লেখ করে অমিত শাহ বলেন, এর ফলে গরিব মানুষেরা এখনও খেতে পাচ্ছে না। তারা সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে অনুপ্রবেশ করছে।

অনুপ্রবেশকারীরা কেবল দেশটির পশ্চিমবঙ্গেই থাকছে না, বিভিন্ন রাজ্যে ছড়িয়ে পড়ছে দাবি করে তিনি বলেন, এমনকি তারা পৌঁছে যাচ্ছে জম্মু-কাশ্মির পর্যন্ত।

এর পেছনে দ্বিতীয় কারণ হিসেবে বাংলাদেশের প্রশাসনিক সমস্যাকে দায়ী করে ভারতীয় স্বারাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটি প্রশাসনিকভাবে মোকাবেলা করতে হবে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের মমতা সরকার সেটি করেনি।

পশ্চিমবঙ্গ দখলে মরিয়া বিজেপির পরিকল্পনার অগ্রভাগে থাকা অমিত শাহ বলছেন, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসকে হটিয়ে ২০০ শ’র বেশি আসন নিয়ে সরকার গঠন করবে তার দল। ক্ষমতায় এসে বাংলাদেশি অনুপ্রবেশ বন্ধ করা হবে।

সাম্প্রতিক সময়ে ভোটে সুবিধা পেতে বিজেপি বাংলাদেশি অনুপ্রবেশের ইস্যুকে সামনে এনেছে বলে দাবি তৃণমূল কংগ্রেসসহ অন্যান্য জোটের। বিশেষ করে সেখানকার মুসলিমদের বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেয়ার হুমকিও দিয়ে আসছেন দলটির নেতারা।